Friday, 8 April 2016

বাঘের গল্প

এসো একটা গল্প বলি -
হাউ মাউ করে এক বাঘ বলল ,
সৃষ্টির শুরু থেকে আমরা উলঙ্গ,জৈবিক প্রবৃত্তির স্বাদ মেটাই নির্দিষ্ট সময়ে -
ক্ষিদে পেলে আরেক নগ্ন জাতিকে খাই !

তখন,গর্জন শোনা গেল অপর প্রান্তে !
বাঘ বলল -ঐ যে আসছে মান-হুঁশ বাঘ; আদম-ইভের যুগে বা প্রসবের পরে -নগ্ন থাকলেও হয়ত সিভিলাইজেশনের পোশাক পরে আর ক্ষিদে পেলে সব পেটে যায় - ফুটপাতের ময়লা মানুষ পশু অথবা ক্ষীণ-দুর্বল জাতভাইয়ের - চুকচুক করে পান করে টকটকে নোনতা শোণিত -
            হাড়ও যায় না বাদ !

       আসলে পার্থক্য কি জানো ?
     বুনো আর মানুষ বাঘদের মধ্যে!
বুনোটা 'কথিত' সভ্য হয়নি ,তাই ষে উলঙ্গ মুখোশহীন,লেজ টানলে মাথাটাও আসে;আর ' ওরা ' -
বাঘের চামড়াধারী সেই গল্পের গাধার দল; সময়ে সময়ে হাঁক পাড়লে ' বাপস ' বলে !

দিই কানে আঙুল ! মুশকিলটা হচ্ছে -
লেজ নেই বলে কান-মাথা আসে না !
     রাজত্ব চালায় বীর বিক্রমে  -
কানে দিতে ভয় হয়,যদি তাও খুলে আসে তাই , জ্ঞান দিলেও আমরা তালা কিনি -
   আর জমিয়ে চোখ বুজে কানে গুঁজি !!

No comments:

Post a Comment

ময়ূরকণ্ঠী প্রাসাদ

                                               ১ এ ক যে ছিল দেশ । ওই দেশের রাজা ছিল আজব , তার মর্জিও ছিল বিদ্‌ঘুটে । রাজার নির্দেশ মত ...