Wednesday, 16 March 2016

পরিচয়হীনা

পরিচয়হীনা কাকে বলে -
নিজেকে! পরিচয়হীনা কে না ;
আমি-তুমি পৃথিবীর ব্ল্যাকহোলের মাঝেও
সঙ্গহীন তারাদের বুকে নিঃসঙ্গ হয়ে থাকে
              ব্রহ্মাণ্ডের গ্রহ-উপগ্রহ !

হটাত,আকাশ দিয়ে প্লেন উড়ে গেল,সভ্যতার পাশ কাটিয়ে,তবুও
সে নীল আকাশের বুকে ' একা ' ;

অভিমানের ডাক নাম ক্ষোভ !
নিশানার তীরে বাঁচতে বাঁচতে দেখবে
প্রস্ফুটিত হয়েছে সেই বাগানে! অভিমানের মাঝেও এক ছলক হাসি
সূর্যের রেশমি চাদর গায়ে দিয়ে সবজে
হাওয়ায় মাথা দুলিয়ে আহ্বান জানাচ্ছে
ক্ষোভের মধুর পরিণতিকে !
এসবের মাঝেও কি নিজেকে বলো
                  ' পরিচয়হীনা ' !

হে নারী সবলা হও; বিবর্তন করো তোমার
              অভিলাষ-অভিলক্ষ্য !
বলতে কে পারে,পরিচয়হীনাই হয়ে উঠবে                         তোমার মাঝে আমাদেরও ' পরিচয় ' !

তুমি এক নারী; তোমার কঠিন মুষ্ঠির অথবা পেলব ছোঁয়ায়,নাম-গোত্রহীন
কচুরিপানাকে সরিয়ে একদা দেখবে -
         আমি আছি - থাকবো !
এক অনাদি কাল ধরে ,আদি নিরন্তর
        ডুব দিয়ে যাও গহন তলে ,
শুষ্ক কাষ্ঠে তুমিও পাবে পৃথিবীর 'পরিচয়'!

No comments:

Post a Comment

মহাভারতে অর্জুন থেকে বৈদিক যুগে নৃত্যকলা

আধুনিক জীবনে নৃত্য আমাদের সকলের কাছে মনরঞ্জনের জন্য এক বৃহৎ মাধ্যম । কিন্তু এই শিল্পের শিকড় খুব যে আধুনিক নয় তা আমরা জানি । বেদ থেকে...